আনলক-১ পর্ব শুরু হলেও এখনও পর্যন্ত বিসিসিআইয়ের পক্ষ থেকে কোনও নির্দেশ আসেনি অনুশীলনের। এই গোটা লকডাউনের সময় আউটডোর ট্রেনিংয়ের সুযোগ না থাকলেও বাড়িতে অলস সময় কাটাননি ঋদ্ধিমান সাহা।

এই মুহূর্তে তাঁকে ক্রিকেট বিশ্বের সেরা উইকেটকিপার বলা হয়ে থাকে। এই তকমাটা বহুদিনের পরিশ্রমের ফল। শীর্ষ স্থানে পৌঁছনো যেমন চ্যালেঞ্জের, আরও বেশি চ্যালেঞ্জের শীর্ষস্থান ধরে রাখা। বিষয়টা বোঝেন বলেই নিজেকে প্রস্তুত রাখছেন সব রকম পরিস্থিতিতে।

এই সময় প্র্যাকটিসের সুযোগ বা করা সম্ভব নয় প্রয়োজনীয় সরঞ্জামের অভাবে। তবুও এই সময় ঘরোয়া কাজের ফাঁকে চোখ ও হাতের সামঞ্জস্য বজায় রাখার চেষ্টা করে চলেছেন। এই কাজে তাঁকে সহায়তা করছেন বাবা প্রশান্ত সাহা।

ঋদ্ধি নিজেই জানিয়েছেন, সাউথ সিটির অ্যাপার্টমেন্টে তাঁকে যথাসম্ভব ক্যাচ প্র্যাকটিস করানোর চেষ্টা করছেন বাবা। এতে তাঁর পায়ের ব্যায়াম এর সাথে রিফ্লেক্সও বজায় থাকছে।

এই সময় ক্যাচ প্র্যাকটিস এর সাথে যথাসম্ভব ফিটনেস ট্রেনিং করছেন। দৌড়ানো সম্ভব না হলেও অ্যাপার্টমেন্টের মধ্যেই হাঁটার সুযোগ রয়েছে তাঁর। তাই ফিট থাকতে সেই সুযোগ কখনও হাতছাড়া করছেন না তিনি।

আরও পড়ুন – ক্রীড়া জগতের সর্বোচ্চ সম্মান রাজীব গান্ধী খেলরত্ন পুরস্কারে মনোনীত রোহিত শর্মা

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *