৫ ই জুন এই দিনটি প্রতি বছর বিশ্ব পরিবেশ দিবস হিসাবে পালিত হয়, যার বিশেষ উদ্দেশ্য পরিবেশকে রক্ষা করা। বিশ্বজুড়ে এই দিনটি উদযাপনের উদ্দেশ্য হল মানুষের মধ্যে পরিবেশ সম্পর্কে সচেতনতা তৈরি করা। ১৯৭২ সালে সুইডেনের রাজধানী স্টকহোমে জাতিসংঘ দ্বারা বিশ্ব পরিবেশ দিবস-এর সূচনা হয়েছিল। প্রথম বিশ্ব পরিবেশ দিবসটি পালন করা হয় ৫ জুন ১৯৭৪ সালে। ১৯৭২ সালে সুইডেনে অনুষ্ঠিত প্রথম পরিবেশ সম্মেলনে ১১৯ টি দেশ অংশ গ্রহণ করেছিল।

কথায় আছে প্রকৃতিকে আপনি যদি ভালবাসেন তবে প্রকৃতিও আপনাকে নানা বাধাবিঘ্ন থেকে রক্ষা করবে। তবে আধুনিক যুগে আমরা প্রকৃতির ভারসাম্যের সাথে খেলছি। আমরা আমাদের সুযোগ-সুবিধার জন্য জীবনদানকারী গাছ এবং গাছপালা ধ্বংস করেছি।

পরিবেশ দিবস 2020 এর গুরুত্ব

এই দিনটির উদযাপন পরিবেশের উন্নতির জন্য গুরুত্বপূর্ণ, যেখানে গোটাবিশ্ব প্রকৃতির ভারসাম্য রক্ষায় জন্য বা এর সমাধান করার উপায় খুঁজে বার করার চেষ্টা করে চলেছে। বিশ্ব পরিবেশ দিবসটি মানুষের মধ্যে পরিবেশ সচেতনতা তৈরি করতে জাতিসংঘ আয়োজিত বিশ্বের বৃহত্তম বার্ষিক অনুষ্ঠান। প্রকৃতির রক্ষায় দিনে দিনে বিভিন্ন পরিবেশগত সমস্যাগুলির মোকাবিলা করার জন্য জাতিসংঘ নানান চিন্তা ভাবনা করে চলেছে।

বিশ্ব পরিবেশ দিবস আমাদের স্মরণ করিয়ে দেয় যে আমাদের উচিত আমাদের প্রকৃতিকে ভালবাসা। গাছগুলিকে আমাদের নিজস্ব সুযোগ-সুবিধার জন্য ধ্বংস করা উচিত নয়, বরং গাছপালা যতটা সম্ভব রোপণ করা উচিত যাতে আমাদের পৃথিবী সবুজ থাকে। আধুনিক যুগে শিল্পায়ন, কার্বনডাইঅক্সাইডের নিঃসরণের পরিমাণকে বহুগুণে বাড়িয়েছে। কার্বনডাইঅক্সাইড দ্বারা সৃষ্ট দূষণ তখনই হ্রাস হতে পারে যদি আমরা প্রচুর গাছ লাগাই। নদী, নিকাশী, ঝরনা ইত্যাদিকে রক্ষা করুন। বিশ্ব পরিবেশ দিবসটি তখনই সফল করা যাবে যখন আমরা পরিবেশের এই বিষয়গুলি প্রতি যত্ন শীল হব। প্রত্যেক ব্যক্তিকে বুঝতে হবে যে এই পৃথিবীতে জীবন ততদিনই সম্ভব যতদিন পরিবেশের ভারসাম্য বজায় থাকবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *