তারকা থেকে সাধারন মানুষ আমিষ খাবার ছেড়ে অনেকেই ঝুঁকেছেন নিরামিশ বা ভেগান (Vegan Foods) খাবারের দিকে। ভেগান (Vegan) খাওয়া এখন একটা ট্রেন্ডে হয়ে গিয়েছে। তাঁদের মতে, এতে যেমন প্রাণীদের অস্তিত্ব সঙ্কটে পড়বে না তেমনই স্বাস্থ্যের পক্ষেও এটা খুবই ভাল। কিন্তু এই খাবারগুলিতে বেশ কয়েকটি জরুরি প্রোটিন বা অ্যামাইনো অ্যাসিড থাকে না। শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় জরুরি অ্যামাইনো অ্যাসিডগুলি নিরামিশ খাবারে থাকে না পর্যাপ্ত পরিমাণে। প্রাণীজ প্রোটিন নিরামিশ খাবারে পাওয়া সম্ভব নয়। তাই দরকার বিকল্প খাবার।

কিন্তু এমন বেশ কিছু শষ্যজাত খাবার রয়েছে যাতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণ পাওয়া যায় অ্যামাইনো অ্যাসিড (Amino Acid)। একনজরে দেখে নেওয়া যাক গুনাগুণ-

কিনোয়া-

সাম্প্রতিক সময়ে খাদ্যগুনের জন্য অনেকেই খাওয়া শুরু করেছেন এই শষ্য। এক কাপ কিনোয়াতে থাকে প্রায় ৮ গ্রাম প্রোটিন। এছাড়াও কিনোয়াতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে জিঙ্ক, ম্যাগনেশিয়াম, আয়রন ও ফাইবার।

টোফু-

সয়াবিন থেকে তৈরি এই খাবার এখন খুবই জনপ্রিয়। ৮৫ গ্রাম টোফুতে থাকে প্রায় ৮ গ্রাম প্রোটিন। শরীরের পক্ষে  প্রয়োজনীয়  ক্যালশিয়াম, পটাশিয়াম ও আয়রনও একসঙ্গে পাওয়া যায় এতে ।

আরও পড়ুন – ধনেপাতার উপকারিতা-সুস্থ থাকতে মেনে চলুন

বাজরা-

জনপ্রিয় ভারতীয় খাবার গুলির মধ্যে বাজরার রুটি অন্যতম। এতে পাওয়া যায় প্রচুর পরিমাণে প্রয়োজনীয় প্রোটিন। এক কাপ রান্না করা বাজরা থেকে পাওয়া যায় ৬ গ্রাম প্রোটিন।

শিয়া বীজ-

এই বীজে পাওয়া যায় ৯টি অ্যামাইনো অ্যাসিড, যা শরীরের পক্ষে অপরিহার্য । ২ টেবিল চামচ শিয়া বীজ থেকে পাওয়া যায় প্রায় ৪ গ্রাম প্রোটিন, প্রচুর পরিমাণে ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড ও জরুরি মিনারেলস।

ভাত-

ভারতীয়দের অন্যতম খাদ্য, ভাত না হলে চলে না। ভাতে পাওয়া যায় ৯টি অ্যামাইনো অ্যাসিড । এক কাপ ভাতে রয়েছে ১২ গ্রাম নিউট্রিয়েন্ট।

 

আরও পড়ুন – শরীর তো বটেই, মুখের যত্নেও গ্রীন টি

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *