সুরক্ষা বলয়ের মধ্যে চারদিকে চলছে ভজন, আলোয় মুড়েছে গোটা শহর ৷  আজ বুধবার সেই বহু প্রতীক্ষিত দিন ৷ রাম মন্দিরের ভূমিপুজো ৷ রাম মন্দিরের প্রথম ইটটি আজ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি স্থাপন করবেন ৷ তারপর শুরু হয়ে যাবে রাম মন্দির নির্মাণের কাজ ৷

১৭৫ জন ভিভিআইপি আমন্ত্রিত আজকের মেগা ইভেন্টে৷ গোটা অনুষ্ঠান লাইভ সম্প্রচার করা হবে ৷ অযোধ্যায় ৩ ঘণ্টা থাকবেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৷ অযোধ্যায় সকেত কলোনিতে বেলা সাড়ে ১১টায় নামবে প্রধানমন্ত্রীর হেলিকপ্টার৷ সেখান থেকে সোজা প্রধানমন্ত্রীর কনভয় যাবে হনুমান গরহি মন্দিরে ৷ ১১টা ৪০ মিনিটে৷ হনুমান গরহিতে পুজো শেষে মোদি ঠিক ১২টায় রাম জন্মভূমি যাবেন৷ সেখানে রামলালা দর্শন করবেন ৷ থাকবেন ঠিক ১০ মিনিট৷ এরপর বেলা ঠিক সাড়ে ১২টায় রাম মন্দিরের ভূমিপুজো শুরু হবে ৷ ১২টা ৪০ মিনিটে মোদি রাম মন্দিরের ভিত্তি প্রস্তর স্থাপন করবেন ৷ তারপর দুপুর ১টা ১০ মিনিটে রাম জন্মভূমি ট্রাস্টের স্বামী নৃত্যগোপাল সহ অন্যান্য সদস্যদের বৈঠক করবেন প্রধানমন্ত্রী ৷ ২টো ৫ মিনিটে সকেত কলোনি থেকে হেলিকপ্টারে করে লখনউ বিমানবন্দর রওনা দেবেন ৷ লখনউ থেকে দিল্লির উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রীর বিমান ছাড়বে ঠিক দুপুর ২টো ২০ মিনিটে ৷

রাম জন্মভূমি তীর্থক্ষেত্র ট্রাস্টের মহাসচিব চম্পত রায় জানান, নির্ধারিত কর্মসূচি মেনে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর উপস্থিতিতে বুধবার অযোধ্যায় আয়োজিত হবে ভূমিপুজোর অনুষ্ঠান৷ প্রধানমন্ত্রী নিজে অবশ্য এ ব্যাপারে মুখ খোলেননি। অমিত শাহের করোনা পজিটিভ হওয়ার খবর আসার পর থেকে আইসোলেশন বা ভূমিপুজোয় যাওয়া, কোনও কিছু নিয়েই মুখ খোলেননি প্রধানমন্ত্রী।

উল্লেখ্য, দেশে প্রতিদিন যখন গড়ে ৫০ হাজারেরও বেশি মানুষ করোনা আক্রান্ত হচ্ছেন, সেখানে এহেন রাজকীয় ভূমিপুজো কতটা যুক্তিসঙ্গত, তা নিয়ে বিতর্ক থামছে না। অমিত শাহ, ধর্মেন্দ্র প্রধানদের মতো মোদী মন্ত্রিসভার মন্ত্রীরা করোনা আক্রান্ত হয়েছেন। সেই অনুযায়ী আইসোলেশনে থাকার কথা প্রধানমন্ত্রীর। শুধু তাই নয়, যোগী আদিত্যনাথের মন্ত্রিসভার সদস্য উত্তরপ্রদেশের মন্ত্রী কমলা রানি বরুণ করোনা আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন। উত্তরপ্রদেশ বিজেপির সভাপতি স্বতন্ত্র দেব সিংও আক্রান্ত হয়েছেন করোনায়। সেইসঙ্গে অযোধ্যায় রামমন্দিরের এক পুরোহিত এবং সেখানে নিযুক্ত অন্তত ১৬ জন পুলিশকর্মীর করোনা ধরা পড়েছে। তারপরও এত রাজকীয় আয়োজন নিয়ে প্রশ্ন তুলছেন অনেকেই।

উত্তরপ্রদেশ সরকার ও কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে অবশ্য দাবি করা হয়েছে, সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং মেনেই ভূমিপুজোর আয়োজন করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী ছাড়াও উপস্থিত থাকবেন আরএসএস প্রধান মোহন ভাগবত, উত্তরপ্রদেশের রাজ্যপাল আনন্দীবেন প্যাটেল, মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ, যোগ গুরু রামদেব, রাম মন্দির ট্রাস্টের প্রধান মহন্ত নৃত্যগোপাল দাসের মতো ভিআইপিরা। আমন্ত্রিত প্রায় ২০০ জন। সেখানে সামাজিক দূরত্ব বিধি কতটা মানা সম্ভব, প্রশ্ন থাকছেই।

 

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *