বুধবার বিকেল সাড়ে তিনটের সময় প্রথম ব্যাচের পাঁচটি রাফাল বিমান পৌঁছলো আম্বালা এয়ারবেসে। ফ্রান্স থেকে সাত হাজার কিমি আকাশপথে পাড়ি দিয়ে এদিন দুপুরেই ভারতের আকাশসীমায় ঢোকে এই বিমানগুলো। দুটি সুখোই বিমান এসকর্ট করে এই পাঁচটি বিমানকে আম্বালার উদ্দেশ্যে নিয়ে আসে। এই দীর্ঘ যাত্রাপথে মাত্র একবার ইউএইতে অবতরণ করেছিল এই বিমান। সাময়িক বিরতির পরেই আরব সাগর হয়ে ভারতীয় আকাশে প্রবেশ করে এই রাফাল বিমান।

ওয়েস্টার্ন ন্যাভাল বেসের তরফে টুইট করে বলা হয়েছে, “ভারত মহাসাগরে তোমাকে স্বাগত। গর্বের সঙ্গে ভারতীয় আকাশে রাজত্ব করো।”

দক্ষিণ-পশ্চিম ফ্রান্সের মারিগনাঁক থেকে মঙ্গলবার যাত্রা শুরু করে এই পাঁচটি বিমান। মাঝআকাশে জ্বালানি ভরে ইউএই’র আল-দাফরা এয়ারবেসে সাময়িক বিরতি নিয়ে ফের আম্বালায় উদ্দেশ্যে রওনা দিয়েছিল এই বিমানগুলি।

অম্বালা এয়ারবেসে এই বিমানকে স্বাগত জানাতে কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে ফেলা হয়েছিল আশেপাশের এলাকা। পৌঁছে গিয়েছিলেন বায়ুসেনা প্রধান। অম্বালা এয়ারবেস থেকে পাক সীমান্তের দুরত্ব মাত্র ২০০ কিমি। তাই কোনওরকম ঝুঁকি নিতে নারাজ প্রতিরক্ষা মন্ত্রক। ঘিঞ্জি জনবসতি বলে জারি করা হয়েছিল ১৪৪ ধারা। একমাত্র স্থানীয়রা বাড়ির ছাদ থেকে এই বিমানের অবতরণ দেখেছেন।

দিনে পাঁচবার জ্বালানি ভরতে পারে আর পাঁচবার বোমারু বিমান হিসেবে কর্মক্ষম এই বিমানগুলি। প্রায় ২০০০ কিমি/ঘণ্টা গতিতে উড়তে সক্ষম এই বিমানে, রয়েছে দু’টি ইঞ্জিন। ৫০ হাজার কিমি পর্যন্ত ওপরে উড়তে পারে এই বিমান। রয়েছে মেটেওর ক্ষেপণাস্ত্র, নেক্সটর কামান। পরমাণু অস্ত্র বহনে সক্ষম এই যুদ্ধবিমানগুলি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *