আজকের কর্মব্যস্ত যুগে দম ফেলার সময় নেই কারও। রান্না করার তো নেইই। বিশেষ করে যদি স্বামী-স্ত্রী দু’জনেই চাকরি করেন, তাহলে বাড়িতে রান্নার চল কমই থাকে। সেক্ষেত্রে মুশকিল আসান হল প্যাকেট ফুড। আজকাল দোকানে সব কিছুই প্যাকেটে পাওয়া যায়। রান্না করার ঝঞ্ঝাট নেই। নিজেরাও খাচ্ছেন, ছেলে-মেয়েকেও খাওয়াচ্ছেন। এই প্যাকেট ফুড খাওয়াতে গিয়ে কিন্তু অজান্তেই অনেক ক্ষতি করে দিচ্ছেন সন্তানের।

ঠিক কী ধরনের ক্ষতি হয় প্যাকেট ফুড খেলে?

ছোটবেলা থেকে প্যাকেট ফুড খাওয়ার অভ্যাস তৈরি হলে বাচ্চারা তাতেই মজে যায়। তখন তাদের আর রান্না করা খাবার ভাল লাগে না। বার্গার, চিপস, কোল্ড ড্রিঙ্কসের প্রেমে পড়ে যায় তারা। আর এইসব খাবার একদিকে যেমন তাদের শরীরের ক্ষতি করে, তেমনই ক্ষতি করে মস্তিষ্কেরও।

আরও পড়ুন – স্ট্রোকের বিপদ কমাতে রোজ ফলের রস খান

চিকিৎসকরা বলছেন, অতিরিক্ত পরিমাণে প্যাকেট ফুড খাওয়া শিশুদের স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকারক। একদিকে যেমন এই প্যাকেট জাত খাবারে প্রচুর পরিমাণে ফ্যাট থাকে, তা বাচ্চদের স্বাস্থ্যের উপর প্রভাব ফেলে। ছোট থেকেই শরীরে ফ্যাট জমে। ফলে মোটা হওয়ার প্রবণতা বেড়ে যায়। আর তার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে শরীরে বাসা বাঁধে নানারকমের রোগব্যাধি। ছোট থেকেও বাচ্চাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায়। তার সঙ্গে বর্তমান সময়ে খেলাধুলো কম হওয়ায় শিশুর শরীরের স্বাভাবিক বৃদ্ধিই বাধা পায়।

এ তো গেল শরীরের ব্যাপার। কিন্তু জানেন কি, প্যাকেট ফুড খেলে তার প্রভাব পড়ে বাচ্চাদের মস্তিষ্কেও। এই জাতীয় প্যাকেট ফুড সংরক্ষণের জন্য উচ্চ তাপমাত্রায় তৈরি করা হয়। ফলে তাতে ট্রান্সফ্যাটের পরিমাণ অনেক বেশি থাকে। আর এই ট্রান্সফ্যাট মস্তিষ্ক ও হার্টের উপর প্রভাব ফেলে। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা ( হু )-এর মতে খাবারে সর্বোচ্চ ০.২ শতাংশ ট্রান্সফ্যাট সহ্য করা যায়। তার থেকে বেশি ট্রান্সফ্যাট শরীরের ঢুকলে তা সরাসরি মস্তিষ্ক ও হার্টের উপর প্রভাব ফেলে। মস্তিষ্কের স্বাভাবিক বৃদ্ধি বাধা পায়। অন্যদিকে হার্টও দুর্বল হয়ে পড়ে। তাই এই প্যাকেট ফুড বাচ্চাদের শরীরের ক্ষতি করে।

আরও পড়ুন – ধনেপাতার উপকারিতা-সুস্থ থাকতে মেনে চলুন

প্রথম বিশ্বের দেশগুলো কিন্তু ইতিমধ্যেই এই ট্রান্সফ্যাট জাতীয় খাবার আটকাতে পদক্ষেপ নিয়েছে। আমেরিকায় ২০১৮ সাল থেকে এই ট্রান্সফ্যাট জাতীয় খাবার নিষিদ্ধ। ২০০৭ সাল থেকেই এই জাতীয় খাবারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ডেনমার্ক। কিন্তু এখনও ভারতে এই জাতীয় খাবারের রমরমা।

তাহলে দেখছেন তো, অজান্তেই আপনার বাচ্চার শরীরে ক্ষতিকারক প্রভাব পড়ছে এইসব প্যাকেট ফুডের। তাই এইসব খাবার খাওয়ানো বন্ধ করুন। সাধারণ হলেও রান্না করা খাবার সন্তানকে খাওয়ান। তাহলেই দেখবেন আপনার সন্তানের বৃদ্ধি স্বাভাবিক হচ্ছে।

আরও পড়ুন – মাংসের থেকেও বেশি খাদ্যগুণ পাওয়া যায় এই নিরামিষ খাবারগুলিতে

আরও পড়ুন – জানেন কি কফির কত গুণ ? 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *