আমফানের মতো ভয়ঙ্কর প্রাণঘাতী হল না নিসর্গ। যদিও এর জেরে ভেঙেছে বহু গাছ ও বিদ্যুতের খুঁটি। স্বস্তিতে বানিজ্যনগরী।

জানা যাচ্ছে, মহারাষ্ট্রের উপকূলে বুধবার বেলা সাড়ে ১২টা নাগাদ আছড়ে পড়ে নিসর্গ। দু’ঘণ্টা ধরে এর তাণ্ডব চলে। এই সময়ে ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ১২০ কিলোমিটার সাথে প্রবল বৃষ্টি। ক্ষতিগ্রস্থ হয়েছে বহু কাঁচা বাড়ি। বদলানো হয়েছে ট্রেন-বিমানের সময় তবে খুব বড় কোনও ক্ষতির খবর পাওয়া যায় নি মহারাষ্ট্র ,গুজরাট দুই রাজ্য থেকে। জানা গিয়েছে, মহারাষ্ট্রে সাইক্লোনে মৃতের সংখ্যা চার।

বুধবার মুম্বইয়ে এই ঝড়ের গতিবেগ ছিল ৯৫ কিলোমিটার।

আইএমডি-র তথ্য অনুযায়ী, শেষ মুহূর্তে সামান্য উত্তর-পূর্বে বেঁকে গিয়েছে এই সাইক্লোন । বিকেলের মধ্যেই সাইক্লোনের শক্তি কম হয়ে যায়। ওইদিন সন্ধেয় মুম্বইয়ে হাওয়ার গতিবেগ ছিল ২৫ কিলোমিটার।

এনডিআরএফ থেকে এ দিন ৪৩ টি দল পাঠানো হয়েছিল সাইক্লোন মোকাবিলায়। তাঁদের তরফেও বলা হয়েছে, দুর্যোগ কেটে গিয়েছে। জোরকদমে শুরু হয়েছে গাছ সরানো ও বিদ্যুতের খুঁটি সারানোর কাজ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *