আজ প্রকাশিত হল উচ্চমাধ্যমিকের ফল। মাধ্যমিকে জেলার জয়জয়কার হলেও উচ্চ মাধ্যমিকে কলকাতার ছাত্রছাত্রীরা এ বার ভাল ফল করেছে। এইবছর উচ্চমাধ্যমিকে কোনও মেধাতালিকা প্রকাশ করেনি উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ। সংসদ প্রকাশিত মেধাতালিকা অনুযায়ী এই বছরের সর্বোচ্চ নম্বর উঠেছে ৪৯৯। যা পেয়েছেন শেখাওয়াত মেমোরিয়ালের ছাত্রী স্রোতশ্রী রায় বেহালা শীলপাড়ার বাসিন্দা তিনি। এ ছাড়া বাঁকুড়া বড়জোড়া হাইস্কুলের গৌরব মণ্ডল ও অর্পণ মণ্ডল এবং হুগলির ঐক্য বন্দ্যোপাধ্যায়। এরা চার জনেই ৪৯৯ নম্বর পেয়েছে। এরপরই রয়েছে, রায়গঞ্জ করোনেশন হাইস্কুলের জয় মণ্ডল এবং নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশন নরেন্দ্রপুরের ছাত্র নীলাব্জ দাস। এদের প্রাপ্ত নম্বর ৪৯৮। নব নালন্দার ছাত্র সৈকত দাস পেয়েছে ৪৯৭ নম্বর।

আজ আনুষ্ঠানিকভাবে ফল ঘোষণা করেন উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি মহুয়া দাস। তিনি জানান, মোট পরীক্ষার্থী ৭ লক্ষ ৬১ হাজার ৫৮৩, এর মধ্যে পাশ করেছে ৬ লক্ষ ৮০ হাজার ৫৭ পরীক্ষার্থী। ৯০ শতাংশের বেশি নম্বর পেয়েছেন ৩০ হাজারের বেশি পরীক্ষার্থী । ৮০ থেকে ৮৯ শতাংশ নম্বর পেয়েছেন ৮৪ হাজার ৭৪৬ জন। উচ্চমাধ্যমিকে প্রাপ্ত সর্বোচ্চ নম্বর ৫০০-র মধ্যে ৪৯৯।

ঐতিহাসিক এই বছর উচ্চমাধ্যমিকের ফল। গতবারের তুলনায় পাশের হার বাড়ল প্রায় ৪ শতাংশ। গতবার উচ্চমাধ্যমিকে পাশ করেছিল ৮৬.২৯ শতাংশ, এবছর পাশের হার ৯০.১৩ শতাংশ। ফার্স্ট ডিভিশন পেয়েছেন ৫০ শতাংশ পড়ুয়া। ২০২০ সালের উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হয়েছিল ১২ মার্চ, এবং শেষ হওয়ার কথা ছিল ২৭ মার্চ। কিন্তু করোনার জেরে ২৩, ২৫ এবং ২৭ মার্চের পরীক্ষাগুলি নেওয়া সম্ভব হয়নি।  তাই মূল্যায়নের ভিত্তিতে ফলাফল প্রকাশ করল উচ্চশিক্ষা দফতর। আগামী ৩১ জুলাই বেলা ২টো থেকে ৫২টি কেন্দ্র থেকে মার্কশিট বিতরণ করা হবে বলে জানা গিয়েছে। স্ক্রুটিনির জন্য ৫০ টাকা রিভিউয়ের জন্য ৭৫ টাকা দিতে হবে। অনলাইনেও আবেদন করা যাবে। এবং ৩১ অগস্টের মধ্যে স্ক্রুটিনি এবং রিভিও করা যাবে বলে জানান হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *