বলিউডের বিখ্যাত ড্যান্স কোরিওগ্রাফার সরোজ খান শনিবার মুম্বাইয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। ৭১ বছর বয়সী সরোজকে শ্বাসকষ্টের কারণে বান্দ্রার গুরু নানক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। তাঁর পরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্র থেকে জানা গিয়েছে যে, তাঁর করোনার পরীক্ষা করা হয়েছিল যার রিপোর্ট নেগেটিভ এসেছিল। বর্তমানে তিনি ভাল আছেন এবং সুস্থ হয়ে উঠছেন, তাঁর যে শ্বাসকষ্টজনিত সমস্যা ছিল এবং যার জন্য তাকে হাসপাতালে নেওয়া হয়েছিল।

চলচ্চিত্র জগতের অন্যতম প্রধান নৃত্য পরিচালক সরোজ খান ১৯৭৮ সাল থেকে সহকারী কোরিওগ্রাফার হিসাবে তার কেরিয়ার শুরু করেছিলেন। ১৯৮৭ সালে ‘মিস্টার ইন্ডিয়া’ ছবিতে হাওয়া হাওয়াই গানের নৃত্য পরিচালনার জন্য  সরোজ খান খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। তিনি আজ অবধি ২০০০ টিরও বেশি চলচ্চিত্রে নৃত্য পরিচালনা করেছেন। তিনি চিরসবুজ গানের কোরিওগ্রাফির জন্য সবচেয়ে বেশি পরিচিত যেমন তেজাবের ‘এক দো তিন’, দেবদাসের ‘দোলা রে’, জব উই মেট থেকে ‘ইয়ে ইশক হায়’ এবং আরও অনেক কিছুর জন্য। নাট্যমঞ্চে মুক্তি পাওয়ার জন্য তাঁর শেষ কোরিওগ্রাফি ছিল ২০১৯ সালে মাধুরী দীক্ষিত অভিনীত ছবি ‘কলঙ্ক’ -এর ‘তাবাঃ হো গ্যায়া’ গানটি ।

সরোজ খান দেবদাস, জব উই মেট এবং ২০০৭ সালে তামিল ছবি শ্রীনারাম-এ তাঁর সেরা কোরিওগ্রাফির জন্য তিনটি জাতীয় পুরষ্কার অর্জন করেছিলেন। তাঁকে ‘নাচ বলিয়ে’, ‘ঝালক দিখলা যা’ এবং ‘সরোজ খানের সাথে নচলে ভে’র মতো বিভিন্ন নাচের রিয়েলিটি শোতে বিচারক হিসাবে দেখা গিয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *