করোনা সংকটের কারণে প্রায় প্রতিটি সংস্থারই কম বেশি লোকসান হয়েছে, টান পড়েছে আয়ে । ব্যতিক্রম নয় টাটা গোষ্ঠীও, তাদেরও বিপুল পরিমাণে লোকসান হয়েছে । এই অবস্থায় খুব শীঘ্রই ভারতে ব্যাপক হারে কর্মী ছাঁটাইয়ের পথ নিতে পারে তারা। বর্তমান পরিস্থিতিতে ইতিমধ্যেই ১০০০ কর্মী ছাঁটাই করেছে ভারতীয় এই বহুজাতিক সংস্থাটি । টাটা গোষ্ঠীর লোকসানের কারণে ছাঁটাইয়ের বিষয়টি প্রায় পাকা করে ফেলেছেন প্রতিষ্ঠানের শীর্ষ কর্তারা। যে কোনও সময় তারা এই বিষয়টি ঘোষণা করতে পারেন।

করোনা সংকটে টাটা গোষ্ঠীর বিভিন্ন ব্যবসার মধ্যে এরোস্পেস, গাড়ি এবং অসামরিক বিমান পরিবহন শিল্প বিপুল লোকসানের মধ্যে পড়েছে । যে কারণে তাদের কর্মীছাঁটাই একান্ত প্রয়োজনীয় হয়ে পড়েছে। এক্ষেত্রে প্রথমের সারিতে থাকা টাটা মোটরস এবং তার শাখা সংস্থা জাগুয়ার ল্য়ান্ড রোভারের বিভিন্ন কারখানার অস্থায়ী চুক্তি ভিত্তিক কর্মীদের উপরে সবার প্রথম ছাঁটাইয়ের কোপ নামতে পারে। ভারতের পাশাপাশি নেদারলান্ডে টাটা গোষ্ঠীর ইস্পাত কারখানার ১ হাজার থেকে ৯ হাজার কর্মীকেও ছাঁটাই করা হতে পারে।

বর্তমান পরিস্থিতিতে ইতিমধ্যেই কর্মীদের বেতন ২০ শতাংশ পর্যন্ত হ্রাস করেছে টাটা গোষ্ঠী। তবে তা প্রয়োজনের তুলনায় এখনও কম বলে মনে করা হচ্ছে। এর আগে, লোকসান হলেও কোনও কর্মীকে ছাঁটাই করা হবে না বলে আশ্বস্ত করেছিল টাটা গোষ্ঠী। এমনকী ক্ষতিপূরণের জন্যও কোন সম্পত্তি বিক্রি করা হবে না বলে জানিয়েছিল তারা।

গত ১৬ জুন ব্রিটেনে ১,০০০ কর্মীকে ছাঁটাই করেছে টাটারা। তাদের জাগুয়ার ল্যান্ড রোভার-এর কারখানা এবং অফিস কর্মীদের উপরে কোপ পড়েছে। ব্রিটেনের বৃহত্তম গাড়ির ব্র্যান্ড জাগুয়ার ল্যান্ড রোভার-এর করোনাভাইরাস সংক্রমণের জেরে আয় ৩০ শতাংশ হ্রাস পেয়েছে। ভারতে কবে থেকে টাটা গোষ্ঠী কর্মী ছাঁটাই শুরু করবে সেই বিষয়ে কিছু জানা যায়নি, তবে খুব শীঘ্রই তারা এই পথে হাঁটবে বলে সূত্রের খবর।

আরও পড়ুন – বিশ্বজুড়ে সমস্ত স্টোর একেবারেই বন্ধ করে দিচ্ছে মাইক্রসফট

তথ্যসূত্রঃ এই সময়

ছবি- হিন্দুস্থান টাইমস

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *