লাদাখে নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর চিনের সঙ্গে উত্তেজনা চরমে, এই পরিস্থিতিতেই আজ বুধবার দিল্লিতে সেনা আধিকারিকদের সঙ্গে উচ্চ পর্যায়ের বৈঠক শুরু হচ্ছে ।

চলতি সীমান্ত উত্তেজনার সঙ্গে এই উচ্চ পর্যায়ের বৈঠকের প্রত্যক্ষ সম্পর্ক নেই। কারণ, বছরে দু’বার এমনিতেই সেনা আধিকারিকদের বৈঠক হয় প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের সাথে। যেখানে নিরাপত্তা সংক্রান্ত নতুন চ্যালেঞ্জ, তার মোকাবিলা, আধুনিকীকরণ, প্রশাসনিক সমস্যা ইত্যাদির বিষয়ে সবিস্তার আলোচনা করেন শীর্ষ সেনা আধিকারিকরা।

তবে সাউথ ব্লকের চলতি সীমান্ত উত্তেজনা পরিস্থিতির প্রসঙ্গ অবধারিত ভাবে ওই বৈঠকে উঠে আসবে বলেই মনে করা হচ্ছে। কারণ, চিনের সঙ্গে সীমান্তে নিরাপত্তা বিষয়ক পরিস্থিতি ও তার থেকে উদ্ভূত চ্যালেঞ্জ নিয়ে নয়াদিল্লিকে ভাবচ্ছে ।

আরও পড়ুন – লাদাখে চীনের সন্দেহজনক গতিবিধি, আশঙ্কা কূটনৈতিক মহলে

এ বছর সেনা আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক এপ্রিল মাসে হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কোভিডের সংক্রমণের জন্য তা পিছিয়ে যায়।

সাউথ ব্লকে আজ থেকে শুক্রবার পর্যন্ত প্রথম পর্যায়ের এই বৈঠকে মূলত নিরাপত্তা সংক্রান্ত নতুন চ্যালেঞ্জ, তার মোকাবিলা, আধুনিকীকরণ, প্রশাসনিক সমস্যা নিয়ে আলোচনা হওয়ার কথা। এর মধ্যেই লাদাখ নিয়ন্ত্রণরেখা এবং ভারত পাক সীমান্তে নিয়ন্ত্রণ রেখা বরাবর পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনা হতে পারে। সেই সঙ্গে উঠে আসতে পারে কাশ্মীরের সন্ত্রাসদমন কার্যকলাপের প্রসঙ্গ। সম্প্রতি এ ব্যাপারে বড় সাফল্য পেয়েছে সেনাবাহিনী।

আরও পড়ুন – উপগ্রহ চিত্র অনুযায়ী, লাদাখের কাছেই এয়ারবেস বানাচ্ছে চিন

সাউথ ব্লক সূত্র অনুযায়ী, প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের আমদানি ও ঘরোয়া উৎপাদনের ব্যাপারে সেনা আধিকারিকদের সঙ্গে আলোচনার কথা রয়েছে। এ মাসের গোড়াতেই প্রধানমন্ত্রীর সচিবালয় প্রতিরক্ষা সরঞ্জামের ঘরোয়া উৎপাদনের উপর জোর দিয়েছে । যদিও প্রতিরক্ষা মন্ত্রক ও সেনা আধিকারিকদের মতে, কিছু অত্যাধুনিক সরঞ্জাম আমদানি করা ছাড়া উপায় নেই। দেশের উৎপাদনের উপর অপেক্ষা করে থাকা বুদ্ধিমানের কাজ হবে না।

সুত্র: দ্য ওয়াল

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *