রবিবার ১৬ ই অগস্ট, দেশের প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী’র প্রয়াণ দিবস। সেই উপলক্ষে দিল্লির অটল সমাধিস্থলে গিয়ে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করলেন রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দ, উপরাষ্ট্রপতি বেঙ্কাইয়া নায়ড়ু, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী ও প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিং-সহ কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার সদস্যেরা। উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর মেয়ে নমিতা কল ভট্টাচার্য, নাতনি নীহারিকা ও বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডাও। এদিন সকালে দিল্লিতে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর স্মৃতিসৌধে ফুল অর্পণ করেন প্রধানমন্ত্রী।

সমাধিস্থলে যাওয়ার আগে ট্যুইটারের মাধ্যমে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীকে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন নরেন্দ্র মোদী (Narendra Modi)। প্রায় দু’মিনিটের ভিডিয়োয় প্রয়াত প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে তাঁর বিভিন্ন মুহূর্তকে দেখানো হয়েছে। তিনি বলেন, পরম শ্রদ্ধেয় অটলজির মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁকে শ্রদ্ধা জানাই। দেশের প্রগতিতে তাঁর অবদান ও প্রয়াস চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে প্রত্যেক ভারতবাসীর মনে। সেখানে তিনি আরও বলেছেন, ‘তাঁর নেতৃত্বে ভারত পরমাণু শক্তিধর দেশ হিসেবে পরিচিত হয়েছিল। সাংসদে, প্রধানমন্ত্রী হিসেবে অলটজি বহু ভূমিকা পালন করেছেন। অটলজির জীবন সম্পর্কে অনেক মহৎ কথাই বলা যেতে পারে’।

প্রধানমন্ত্রীর পাশাপাশি, অটলবিহারী বাজপেয়ীর দ্বিতীয় প্রয়াণ দিবসে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন করেন কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ, প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহও। অমিত শাহ ট্যুইট করে লিখেছেন, ‘ভারতরত্ন শ্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীজি দেশপ্রেম ও ভারতীয় সংস্কৃতির অন্যতম উদাহরণ ছিলেন। লক্ষ লক্ষ মানুষকে দেশসেবায় অনুপ্রাণিত করেছিলেন’। রাজনাথ সিং ট্যুইট করেন, ‘প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ীজির পুণ্যতিথিতে তাঁকে নতমস্তকে প্রণাম জানাই। দেশের জন্য তাঁর অবদান কোনওদিন ভোলা যাবে না।’ অন্যদিকে, উত্তরপ্রদেশে লোকসভা ভবনে অটলবিহারী বাজপেয়ীর মূর্তিতে মালা দেন যোগী আদিত্যনাথ।

প্রসঙ্গত, অটলবিহারী বাজপেয়ী ২২৬৮ দিন প্রধানমন্ত্রী পদে থেকে দায়িত্ব সামলেছিলেন। দেশের ইতিহাসে সব থেকে বেশিদিন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন জওহরলাল নেহেরু। ১৬ বছর ২৮৬ দিন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তিনি। ইন্দিরা গান্ধী ছিলেন ১৫ বছর ৩৫০ দিন। মনমোহন সিং ১০ বছর চার দিন প্রধানমন্ত্রী ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *